বিমানবন্দরের ভেতরেই দৃষ্টিনন্দন পার্ক ও ঝরনা


প্রকাশিত: ৩০ এপ্রিল ২০১৯ , ০৭:০৯ পিএম
বিমানবন্দরের ভেতরেই দৃষ্টিনন্দন পার্ক ও ঝরনা

এবার দৃষ্টিনন্দন পার্ক ও ঝরনা দেখতে পাবেন একটি বিমানবন্দরে। সিঙ্গাপুরের চেঙ্গি বিমানবন্দরের ভেতরেই গড়ে তোলা হয়েছে বিশাল পার্ক ও ঝরনা। যাত্রীদের সময় কাটানো ও বিনোদনের জন্য অভাবনীয় এ কাজটি করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ।

সূত্র জানায়, বিশ্বের সপ্তম ব্যস্ত বিমানবন্দর এটি। এখানে পাঁচতলা উচ্চতার চোখধাঁধানো কাচের ডোম, বিশ্বের সবচেয়ে দীর্ঘ ইনডোর ঝরনা আর হাজারখানেক গাছের দৃষ্টিনন্দন পার্ক তৈরি করা হয়েছে বিমানবন্দরের ভেতরেই। সব প্রতীক্ষা শেষে গত ১৭ এপ্রিল দৃষ্টিনন্দন বিমানবন্দরটি সবার জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

কর্তৃপক্ষ জানায়, বিমানবন্দরের ভেতরে ৪০ মিটার উচ্চতার ঝরনাটির নাম দি রেইন ভরটেক্স। চার দেয়ালের ভেতরে নির্মিত বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ঝরনা এটি। উপরে কাঁচ আর ইস্পাতের বিশাল গম্বুজ। ঝরনাটি ঘিরে রয়েছে ৫ স্তরের প্রাকৃতিক পার্ক। হাজারখানের সবুজ গাছ ও ফুলের বাগান রয়েছে পার্কে।

দর্শনার্থীরা জানান, জুয়েল নামের এ অংশটির আকার ১ লাখ ৩৭ হাজার বর্গমিটার। পার্ক ও ঝরনা তৈরি করায় বিমানবন্দরটির খ্যাতি আরও বেড়ে গিয়েছে। এখানে যাত্রীদের জন্য রয়েছে ২৮০টি দোকান। আছে হোটেল আর সিনেমা হলও।

গত ১৭ এপ্রিল পার্কটি খুলে দেওয়ার পর দর্শনার্থীদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। পার্কটি নির্মিত হওয়ায় যাত্রীরা সন্তোষ প্রকাশ করেছে।