ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে ৭টি ভুল ধারণা


প্রকাশিত: ১৯ জানুয়ারি ২০২১ , ১১:০৫ পিএম
ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে ৭টি ভুল ধারণা

ডার্ক ওয়েব ইন্টারনেটের এমন একটি জায়গা যেখানে স্পেশাল ব্রাউজার ব্যবহার করে অ্যাক্সেস নেয়া যায়। ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মধ্যে অনেক ভুল ধারণা রয়েছে। আজ বলবো ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে এমন ৭টি ভুল ধারণা।

১.ওনিয়ন রাউটার দিয়ে ডার্ক ওয়েবে অ্যাক্সেস পাওয়া যায়
ওনিয়ন রাউটার (টর) বিশ্বে ডার্ক ওয়েব ব্যবহারকারীদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। টরের ফিচারের সঙ্গে ভিপিএনের ফিচারের মিল রয়েছে। অনেক হ্যাকার এই ব্রাউজার ব্যবহার করে হ্যাকিংয়ের কাজ করে থাকেন।

২. ডার্ক সাইটে ব্যবহার করা হয় বিশেষ ডোমেইন ডট ওনিয়ন
ইন্টারনেটে ডোমেইন ব্যবহারের ক্ষেত্রে যেমন ব্যবহৃত হয় ডট কম, ডট ওআরজি, ডট গভ, তেমনই ডার্ক ওয়েবে ব্যবহৃত হয় ডট ওনিয়ন। এই ডোমেইন ব্যবহার করে বিশেষ ব্রাউজারের অ্যাক্সেস পাওয়া যায়।

৩. ডার্ক ওয়েব ব্রাউজ অবৈধ নয়
ডার্ক ওয়েব সম্পর্কে বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে একটি ভুল ধারণা ডার্ক ওয়েব ব্রাউজ অবৈধ। প্রকৃতপক্ষে ডার্ক ওয়েব অবৈধ নয়। টর ব্যবহার করে যে কোনো ডার্ক ওয়েবসাইটে ব্রাউজ করা যায়। তবে কোনো অপরাধে উসকানিমূলক কনটেন্ট ব্রাউজ করার ক্ষেত্রে সাবধান থাকা জরুরি।

৪. অপরাধ করার জন্য ডার্ক ওয়েব ব্যবহার হয় না
ডার্ক ওয়েবের নাম শুনলে মনে হয় এটা কেবল খারাপ কাজে ব্যবহৃত হয়। প্রকৃতপক্ষে ডার্ক ওয়েব অনেক মানবহিতৈষি কাজেও ব্যবহৃত হয়ে থাকে। ডার্ক ওয়েব ব্যবহার করে তথ্যের নির্ভুলতা যাচাই করা হয়ে থাকে।

৫. ডার্ক ওয়েবে জনপ্রিয় সিল্ক রোড সাইট
২০১৩ সালের অক্টোবরে যুক্তরাষ্ট্রের আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা এফবিআই কর্তৃক জব্দ হওয়ার আগ পর্যন্ত সিল্ক রোড সাইট ডার্ক ওয়েবে জনপ্রিয় ছিলো। ২০১১ সালের ফেব্রুয়ারিতে এখানে অপরাধে উসকানিমূলক কনটেন্ট পাওয়া যায়। আর সেই কারণে সাইটটি জব্দ করে রাখা হয়েছে।

৬. স্ক্যাম
ডার্ক ওয়েবে বেশিরভাগ ওয়েবসাইট স্ক্যাম অর্থাৎ নিরাপদ নয়। এসব ওয়েবসাইটের বেশিরভাগই অপরাধে উসকানিমূলক। এসব ওয়েবসাইট ব্যবহার করে হ্যাকাররা হ্যাকিংয়ের কাজ করে থাকে। অনেক সাইটে অ্যাক্সেস নিলে কম্পিউটার হ্যাক হওয়ার ঝুঁকি অনেক।

৭. বিটকয়েন দিয়ে বেশিরভাগ বেচাকেনা
বিটকয়েন একটি ক্রিপ্টোকারেন্সি। ২০১২ সালের শেষের দিকে বিশ্বের কম্পিউটারে র‌্যানসম ওয়্যার ছড়িয়ে পড়লে তখন বিটকয়েন দ্বারা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। বলা হয় বিটকয়েন দিলে র‌্যানসম ওয়্যার থেকে মুক্তি মিলবে। ডার্ক ওয়েবের একাধিক ওয়েবসাইটে বিটকয়েন দ্বারা বেচাকেনা হয়।