অ্যাপস্টোর থেকে পার্লার অ্যাপ সরালো অ্যাপল


প্রকাশিত: ১০ জানুয়ারি ২০২১ , ০৬:৩৫ পিএম
অ্যাপস্টোর থেকে পার্লার অ্যাপ সরালো অ্যাপল

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় টেক জায়ান্ট অ্যাপলের অ্যাপ স্টোর থেকে বাদ দেয়া হলো সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং অ্যাপ পার্লার। শনিবার পার্লারকে এ বিষয়ে সতর্ক করে দেয় অ্যাপল।

অ্যাপল সতর্কবার্তায় বলেছে, অ্যাপটিতে ট্রাম্প সমর্থকরা ক্যাপিটাল হিলে সহিংসতার উসকানি ছড়ানোর মধ্য দিয়ে অ্যাপলের নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে।

অ্যাপল বলেছে, ‘আমরা সবসময় ভিন্নমতকে শ্রদ্ধার চোখে দেখি। কিন্তু সহিংসতা ও নৈরাজ্য সৃষ্টির উসকানি করলে তার স্থান আমাদের অ্যাপ স্টোরে হবে না। পার্লার অ্যাপে ট্রাম্প সমর্থকরা ক্যাপিটাল হিলে সহিংসতার উসকানি দিয়ে পোস্ট করেছে। এসব পোস্ট সরিয়ে ফেলতে ব্যর্থ হয়েছে সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং অ্যাপ পার্লার।’

এর আগে শনিবার গুগল প্লে-স্টোর থেকে পার্লার ‘ফ্রি-স্পিচ’ অ্যাপ সরিয়ে ফেলা হয়। এদিকে সহিংসতার উসকানির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে অ্যামাজনও পার্লার অ্যাপকে ২৪ ঘণ্টার নোটিশ দিয়েছে।

অ্যাপল বলছে, এর মধ্য দিয়ে পার্লার অ্যাপ অ্যাপলের নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে। অ্যাপলের অ্যাপস্টোর নীতিমালা অনুযায়ী কোনো অ্যাপের মাধ্যমে সহিংসতার উসকানি দেয়া হলে তা মুছে ফেলতে হবে।

টেকক্রাঞ্চ-এর খবরে বলা হয়, এই নীতিমালা থাকা সত্ত্বেও অ্যাপল ও গুগল চলতি সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ট্রাম্প সমর্থক এবং ডানপন্থী রিপাবলিকান পার্টির নেতাদের অ্যাপ দুটি ব্যবহার করে বিভিন্ন জায়গায় ক্যাপিটাল হিলে সহিংসতার উসকানিমূলক পোস্ট সরিয়ে ফেলেনি।

বাজফিড নিউজ-এর খবরে বলা হয়, অ্যাপলের কাছ থেকে শুক্রবার ২৪ ঘণ্টার নোটিশ পায় পার্লার।

অ্যাপলের নোটিশে বলা হয়, পার্লার অ্যাপ ব্যবহার করে সহিংসতার উসকানি ছড়ানো হয়েছে। কিন্তু তা সত্ত্বেও অ্যাপটি এসব পোস্ট সরিয়ে ফেলার পদক্ষেপ নেয়নি।

অ্যাপলের এই নোটিশের প্রতিক্রিয়ায় পার্লর অ্যাপের প্রধান নির্বাহী জন মাটজে বলেন, বাকস্বাধীনতার প্রতিরোধকারীদের কাছে তিনি পরাজয় স্বীকার করবেন না।

ওয়াশিংটন পোস্টের খবরে বলা হয়, টুইটারের প্রধান নির্বাহী জ্যাক ডর্সির কাছে শুক্রবার ৩৫০ কর্মকর্তার স্বাক্ষরকৃত এক চিঠির প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট স্থায়ীভাবে ব্যান করে দিয়েছে। এর আগে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফেসবুক, টুইটার, স্ন্যাপচ্যাট, টুইচসহ আরও একাধিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে ব্যান করা হয়।