অবিশ্বাস্য ম্যাচ শেষে কাঁপছিলেন প্রীতি জিনতা


প্রকাশিত: ১৯ অক্টোবর ২০২০ , ০৯:৩৫ পিএম
অবিশ্বাস্য ম্যাচ শেষে কাঁপছিলেন প্রীতি জিনতা

সুপার ওভার মানেই রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনা। আর যদি একই ম্যাচে দুই দুবার সুপার ওভার হয় তাহলে তো স্নায়ুচাপটা আরও বেশি হওয়াই স্বাভাবিক। কাল আইপিএলের দর্শকেরা প্রথমে দেখেছে কলকাতা নাইট রাইডার্স ও সানরাইজ হায়দরাবাদের মধ্যে সুপার ওভার। পরের ম্যাচটিও ছিল উত্তেজনায় টইটম্বুর। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে হারাতে দুটি সুপার ওভার খেলতে হয়েছে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবকে। দুবাইয়ের গ্যালারিতে বসে সেই ইতিহাসের সাক্ষী হয়েছেন পাঞ্জাবের যৌথ মালিক বলিউড অভিনেত্রী প্রীতি জিনতা।

ম্যাচে যতবার রং বদলেছে একটু পর পরই টেলিভিশন পর্দায় ভেসে উঠেছে প্রীতি জিনতার চেহারা। কখনো স্নায়ুচাপে মাথায় হাত দিয়ে বসে থেকেছেন। কখনো আনন্দে শিশুর মতো লাফিয়ে উঠেছেন। স্নায়ুর এত কঠিন পরীক্ষা দিয়েছেন যে ম্যাচ শেষ হওয়ার পরও বিশ্বাস হচ্ছিল না। ম্যাচ শেষ হওয়ার দুই ঘণ্টা পরও কাঁপছিলেন প্রীতি।

স্নায়ুর চূড়ান্ত পরীক্ষা নেওয়ার পর শেষ পর্যন্ত ম্যাচ জিতেছে পাঞ্জাব। মুম্বাইয়ের কাছ থেকে এভাবে ২ পয়েন্ট নেওয়ার আনন্দে দিশা হারিয়ে ফেলেছিলেন প্রীতি। নিজের টুইটার পেজে ম্যাচ শেষে জয়ের পর লিখেছেন, ‘যখন কথা বলার শব্দ খুঁজে পাই না, তখন প্রতিক্রিয়াগুলোই আমার হয়ে কথা বলে। দুটি সুপার ওভার? অবিশ্বাস্য! আমি এখনো কাঁপছি। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের ছেলেদের জন্য আমি গর্বিত। কী দুর্দান্ত ম্যাচ! কী দুর্দান্ত রাত! কী অনুভূতি! টিম ওয়ার্ক সব সময় সেরাটা বের করে আনে।’

এবারের আইপিএলে পাঞ্জাব ৯ ম্যাচে জিতেছে তিনটি ম্যাচ। ৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে দলটি। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের ১৭৬ রান তাড়া করতে এসে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবও থামে সেখানে। এরপর প্রথম সুপার ওভারে ম্যাচ নিষ্পত্তি হয়নি। প্রথমে ব্যাট করে লোকেশ রাহুলরা মাত্র ৫ রান করেন। রোহিত শর্মা ও কুইন্টন ডি কক মাত্র ৬ রানের লক্ষ্যে নেমেও ব্যর্থ হয়েছেন। মাত্র ৫ রান করতে পেরেছেন দুজন। এরপর আবার ব্যাট করতে নামে মুম্বাই। এবার ১২ রানের লক্ষ্য দেয় মুম্বাই। ক্রিস গেইল আর মায়াঙ্ক আগরওয়াল মিলে ৪ বলেই লক্ষ্য পেরিয়ে গেছেন। এর আগে সুপার ওভারে হারের স্বাদও পেয়েছিল দলটি।