কখন পানি পান করা ক্ষতিকর?


প্রকাশিত: ১৩ জানুয়ারি ২০২১ , ০৮:২৩ পিএম
কখন পানি পান করা ক্ষতিকর?

সুস্থ থাকতে পানি পানের বিকল্প নেই। তবে সেই পানি যেন বিশুদ্ধ হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। কারণ অপরিষ্কার পানি পান করলে তা মারাত্মক সব অসুখ ডেকে আনতে পারে। এমনকী দেখা দিতে পারে জীবনহানির ভয়ও! তবে যেকোনো সময় পানি পান করলেই হবে না, সময় বুঝে পান করতে হবে। ভাবছেন, পানি পানের আবার সময়-অসময় কী! আপনি যদি ভুল সময়ে পানি পান করেন তবে শরীরে দেখা দিতে পারে নানারকম সমস্যা। তাই শুধু বিশুদ্ধ পানিই নয়, ঠিক রাখতে হবে পানি পানের সময়ও।

তৃষ্ণা পেলে আমরা পানি পান করি। তবে তৃষ্ণা মেটানো ছাড়াও পানির রয়েছে অনেক কাজ। যেমন এটি আমাদের শরীরে পানির মাত্রা ঠিক রাখে, অতিরিক্ত ক্যালোরি পোড়ায় এবং কমায় ক্ষুধাভাব। তবে কিছু সময় রয়েছে যখন পানি পান করলে ঘটতে পারে হিতে বিপরীত। খাওয়ার সময় বারবার পানি পান করার অভ্যাস আছে অনেকের। কিন্তু এটি মোটেই স্বাস্থ্যকর নয়। কারণ খাবার খাওয়ার মাঝে বেশি পানি পান করা হয়ে গেলে তা হজমের সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। অতিরিক্ত পানি হজম সহায়ক এনজাইম ও অ্যাসিডের ক্ষমতা কমিয়ে দেয়।

ভুল সময়ে পানি পান করার আছে আরও অনেক অপকারিতা। তাই কোন সময়ে পানি পান করা উচিত এবং কখন উচিত নয় তা আমাদের সবার জেনে রাখা জরুরি। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কোন সময়ে পানি পান করা আসলে উপকারী নয়-

পেট ভরে খাবার পরে
পেট ভরে খাবার খেয়ে উঠেই ঢকঢক করে পানি পান করছেন? বাদ দিন এই অভ্যাস। খাবার খাওয়ার আগে পানি পানের অভ্যাস করুন। তাও খেতে হবে খাবার খাওয়ার অন্তত মিনিট পনেরো আগে। খাবারের মাঝখানে পানি পান করাও বাদ দিতে হবে। তবে খুব তেষ্টা পেলে অল্প পানি পান করা যেতে পারে। কিন্তু বেশি পানি পান করে ফেললে তা নানা অস্বস্তির কারণ হতে পারে।

তৃষ্ণা না পেলে
অনেক সময় তৃষ্ণা না পেলেও আমরা অভ্যাসবশত পানি পান করে থাকি। অনেকে মনে করেন, যত বেশি পানি পান করা যাবে ততই লাভ। বিষয়টি আসলে তেমন নয়। বরং অতিরিক্ত পানি পানের আছে অনেক অসুবিধা। তাই তৃষ্ণা না পেলে পানি পান করবেন না। প্রয়োজনের চেয়ে বেশি পানি পান করলে তা আমাদের শরীরে লবণের ভারসম্য নষ্ট করে। ফলে নানা অসুখ দেখা দিতে পারে।

প্রস্রাব যদি পরিষ্কার হয়
প্রস্রাবের রং হলুদ হলে তা দুশ্চিন্তার বিষয়। কিন্তু প্রস্রাব পরিষ্কার থাকলে চিন্তার কিছু নেই। তখন বুঝবেন শরীরে পর্যাপ্ত পানি রয়েছে। কারণ শরীরে পানির ঘাটতি দেখা দিলে প্রস্রাব হলুদ হতে পারে। কিন্তু শরীরে পর্যাপ্ত পানি থাকার পরেও যদি আপনি বারবার পানি পান করতে থাকেন, তখন ঘটতে পারে হিতে বিপরীত।

শরীরচর্চার পরপরই
শরীর ঠিক রাখার জন্য শরীরচর্চার বিকল্প নেই। প্রতিদিন নিয়ম মেনে শরীরচর্চা করেন, এটি অবশ্যই ভালো অভ্যাস। কিন্তু শরীরচর্চার পরপরই পানি পান করেন কি? এই অভ্যাস কিন্তু আপনার ক্ষতি ডেকে আনতে পারে। শরীরচর্চার ধরন হালকা হলে তার মাঝখানে হালকা পানি পান করা যেতে পারে। তবে শরীরচর্চার পরপর অবশ্যই নয়। শরীরচর্চার পর শরীর থেকে ঘামের মাধ্যমে যে পরিমাণ মিনারেল বের হয়ে যায় তার ঘাটতি পূরণের জন্য ডাবের পানি পান করা যেতে পারে।