এসি থেকে দূরে থাকলে যে সুফল পাবেন

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৯ , ০৫:৪৩ পিএম
এসি থেকে দূরে থাকলে যে সুফল পাবেন

বাসা, অফিস, গাড়ি- সব কিছুতেই এসি। এসি ছাড়া আজকাল চলেই না। অথচ সারাক্ষণ এভাবে এসিতে থাকতে থাকতে নিজেরই ক্ষতি ডেকে আনছেন। তবে এই শীতকালে কিন্তু এসি থেকে দূরে থাকতে পারেন। তাতে আপনারই লাভ। তাহলে জেনে নিন কেমন লাভ হতে পারে আপনার-

প্রথমত এসিতে থাকতে হলে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হয়। কারণ এসিতে থাকলে এমনিতেই শরীরে পানির অভাব দেখা দেয়। যে ঘরে এসি চলে, সে ঘরের বাতাস মরু অঞ্চলের বাতাসের মতো শুষ্ক হয়ে যায়। ফলে ত্বকের ময়শ্চার বের করে দেয়। এতে ত্বক শুষ্ক ও খসখসে হয়ে যায়।

এমনকি বহুদিন ধরে দীর্ঘক্ষণ এসিতে থাকতে থাকতে ত্বক ক্রমশ কুঁচকে যায়। ফলে আপনাকে বেশি বয়স্ক দেখাতে পারে। তাহলে অযথা কেন নিজের বিপদ ডেকে আনবেন? টাকা খরচ করে নিজের বুড়িয়ে যাওয়া ত্বকটা দেখতে কি ভালো লাগবে?

যদি একান্তভাবে এসিতে থাকতেই হয়; তাহলে এক্ষেত্রে ঘরোয়া কিছু টিপস মানতে হবে। যা আপনার ক্ষতিকর দিকগুলো দূর করতে সাহায্য করবে। তাই আপনাকে সাবানের পরিবর্তে ক্লিনজিং মিল্ক বা জেল দিয়ে মুখ পরিষ্কার করতে হবে। কারণ সাবান ত্বককে শুষ্ক করে।

এছাড়া মাসে একদিন ফেসিয়াল করুন। ত্বক মসৃণ, টানটান এবং উজ্জ্বল রাখার জন্য টোনিংয়ের কোনো বিকল্প নেই। তুলায় গোলাপ জল দিয়ে মুখ মুছে নিতে পারেন। নিয়মিত মুখে ও গলায় ময়শ্চারাইজিং লোশন বা ক্রিম মাসাজ করুন। এতে ত্বক শুষ্ক হবে না।

এসিতে থাকলে দু’ঘণ্টা পরপর অবশ্যই ময়শ্চারাইজার লাগাবেন। এটি ত্বকের স্বাভাবিক আর্দ্রতা ধরে রাখতে সাহায্য করে। কমলা লেবুর রস মিশিয়ে লাগাবেন মাঝেমধ্যে। এতে ত্বক নরম ও মসৃণ হবে। মনে রাখবেন- সারারাত এসি চালিয়ে ঘুমাবেন না।

তবে সারা বছরই এসির পরিবর্তে ফ্যান ব্যবহার করুন। কিছুক্ষণ ঘর ঠান্ডা করে এসি বন্ধ করে রাখুন। রাতে ঘুমানোর আগে ২০ মিনিট এসি চালিয়ে রুম ঠান্ডা করে নিন। এরপর ফ্যান চালিয়ে শুয়ে পড়ুন। চব্বিশ ঘণ্টা এসি চালিয়ে রাখা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয়।

এখন যেহেতু শীতকাল, সেহেতু আপনার জন্য সহজ হবে এসি বন্ধ করে রাখা। এই শীতে এসি বন্ধ করে রাখলে আপনার ত্বক, প্রসাধনী খরচ ও বিদ্যুৎ বিল বেঁচে যাবে। এতে আপনারই লাভ। এক ঢিলে তিন পাখি মারতে পারবেন অনায়াসেই। তাহলে আজই চেষ্টা করুন।