বই ভালো রাখার ১০ উপায় জেনে নিন

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৫ এপ্রিল ২০১৯ , ০৯:৩৬ এএম
বই ভালো রাখার ১০ উপায় জেনে নিন

শখে হোক বা প্রয়োজনে যেভাবেই হোক না কেন কিছু বই জমে যায় আমাদের হাতে। আর যাদের বই সংগ্রহের বাতিক আছে তাদের তো কোনো কথাই নেই। সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে না পারলে বই দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। মনে রাখতে হবে, বইয়ের মূল উপাদান কাগজ এবং এটি খুব নাজুক। ফলে বই দ্রুত নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আপনার কষ্ট করে সংগ্রহ করা বইগুলোকে যদি দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করতে চান তাহলে জেনে নিন এই ১০টি উপায়।

বুক শেলফ ব্যবহার করুন
যেখানে সেখানে বই ফেলে রাখলে বই দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। তাই বই দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করার জন্য বুক শেলফ আদর্শ। কাঠ, মেটাল বা প্লাই উড বোর্ডের তৈরি শেলফ ব্যবহার করতে পারেন আপনার বই রাখার জন্য। শেলফের সামনে কাচ না থাকাই ভালো। বইয়ের পরিমাণ বুঝে শেলফ কিনুন বা বানিয়ে নিন।

প্লাস্টিকের ঝুড়িতে বই রাখুন
আপনার সংগ্রহের বইগুলো যদি সব সময় আপনাকে ব্যবহার করতে না হয় তাহলে সেগুলো সংরক্ষণ করার জন্য প্লাস্টিকের ঝুড়ি বা ট্যাব সবচেয়ে ভালো। বইয়ের পরিমাণ যদি কম হয় তাহলে প্লাস্টিকের ঝুড়ি বা ট্যাব ব্যবহার করতে পারেন বই সংরক্ষণের জন্য। প্লাস্টিকের ঝুড়ি বা ট্যাব বইকে সূর্যরশ্মি, পানি, বই খেয়ে ফেলার পোকা ইত্যাদির হাত থেকে রক্ষা করবে। এ ক্ষেত্রে আপনাকে সুবিধামতো প্লাস্টিকের ট্যাব বেছে নিতে হবে। এর জন্য আপনি চৌকোনা ট্যাব বেছে নিন। খুব চাপাচাপি করে বই রাখবেন না। প্লাস্টিকের ট্যাব বা ঝুড়িগুলো আপনি সুবিধামতো চিলেকোঠায়, গ্যারেজে, খাটের নিচে অর্থাৎ যেসব জায়গা সাধারণভাবে ব্যবহৃত হয় না সেসব জায়গায় রাখতে পারেন।

কম হিউমিডিটিযুক্ত কক্ষে বই রাখুন
হঠাৎ করে দেখা যায় বইয়ের পাতাগুলো বাঁকা হয়ে গেছে কিংবা বইয়ের পাতাগুলো একে অপরের সঙ্গে লেগে গেছে। এগুলোর কারণ হিউমিডিটি। যে রুমের হিউমিডিটি কম সে রুমে বই বেশি দিন ভালো থাকে। সবচেয়ে ভালো হয় শতকরা ৩৫ ভাগ হিউমিডিটিতে বই রাখা। এটিকে আদর্শ মনে করা হয়। তবে দেশ এবং ভৌগোলিক অবস্থান ভেদে হিউমিডিটির পরিমাণে পার্থক্য থাকতে পারে। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, ৫০ পারসেন্ট হিউমিডিটির নিচে বই রাখা ভালো।

সরাসরি সূর্য রশ্মি পড়ে এমন জায়গায় বই রাখবেন না
সরাসরি সূর্য রশ্মি পড়ে, গরম যন্ত্র—যেগুলো তাপ উৎপাদন করে সেগুলোর কাছাকাছি বই রাখবেন না। এতে বইয়ের বাঁধাই খুলে যেতে পারে। এ ছাড়া কাগজ শুষ্ক হয়ে বই বিকৃত হয়ে যেতে পারে। যে রুমে বই রাখবেন সেখানে ‘সফট লাইট’ ব্যবহার করুন। জানালায় ভারী পর্দা অথবা ঘোলা কাচ ব্যবহার করুন, যাতে সূর্যরশ্মি সরাসরি আপনার বইয়ে না পড়ে।

বই খাড়া করে অথবা শুইয়ে রাখুন
যেখানেই বই রাখুন না কেন বই খাড়া অথবা শুইয়ে রাখুন। এতে বইয়ের বাঁধাই, পৃষ্ঠা ইত্যাদি দীর্ঘদিন ভালো থাকবে। এভাবে রাখার জন্যই বইয়ের ডিজাইন তৈরি করা হয়েছে।

পোকার হাত থেকে বই দূরে রাখুন
আপনার সংগ্রহের কিছু কিছু বইয়ের বাঁধাইয়ে কাগজের সঙ্গে গ্লু ব্যবহার করা হয়েছে। আপনি হয়তো সেটা জানেন না। কিছু কিছু পোকার খাবার হচ্ছে এই গ্লু। এই পোকাগুলো আপনার বই কেটে ফেলবে আপনার অগোচরে। পোকার হাত থেকে বই রক্ষা করার কার্যকরী উপায় হচ্ছে বইয়ের মাপে মোটা কাগজের কাভার তৈরি করে বইকে সেই কাভারের ভেতর ঢুকিয়ে দেওয়া। এ ছাড়া প্লাস্টিক ট্যাবে বই রাখাও একটা ভালো উপায়। এর জন্য ভেষজ উপাদানও ব্যবহার করা যেতে পারে। তিতা নিমপাতা বইয়ের র‌্যাকে রেখে দিন। নিমপাতা প্রাকৃতিকভাবে আপনার বইকে পোকার হাত থেকে রক্ষা করবে।

বই রাখুন প্লাস্টিকের প্যাকেটে
যে বইগুলো দুর্লভ সেগুলোকে দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করতে হলে সেই বইয়ের মাপে প্লাস্টিকের প্যাকেট তৈরি করে নিন। তারপর বইগুলো সেই প্যাকেটে সংরক্ষণ করুন। খুব সাবধানে সেই বইগুলো স্ক্যান করে ডিজিটাল ভার্সন তৈরি করতে পারেন। তাতে বই নষ্ট হয়ে গেলেও তার কপি আপনার কাছে থেকে যাবে। তবে দুর্লভ পুরাতন বই সংরক্ষণ করার জন্য অভিজ্ঞ কনজারভেটরের সাহায্য নেওয়াই ভালো।

বই রাখার জায়গায় বা রুমে পানভোজন বাদ দিন
যে জায়গায় বা যে ঘরে বই রেখেছেন সেখানে পানভোজন করলে পানিতে আপনার বই নষ্ট হয়ে যেতে পারে। এ ছাড়া ব্যাকটেরিয়া বা বইপোকার উৎপাত শুরু হতে পারে। একবার বইপোকার উপদ্রব শুরু হলে তাকে ঠেকানো খুব সহজ নয়। কাজেই বই রাখার জায়গায় পানভোজন একেবারে বাদ দিন।

নিয়মিত বই পরিষ্কার করুন
বই যেখানেই রাখুন না কেন কিছু ধুলাবালু তার ওপর জমেই যায়। কাজেই নির্দিষ্ট সময় পরপর বই পরিষ্কার করুন। বই পরিষ্কারের জন্য নরম কোনো কিছুর ঝাড়ুনি ব্যবহার করুন। বই মোছার জন্য সুতি কাপড় ব্যবহার করা ভালো। বই খাড়া করে ধরে ওপর থেকে নিচে এই প্রক্রিয়ায় মুছতে থাকুন। পুরোনো বই, র‌্যাক্সিন বা চামড়ায় বাঁধানো বই পরিষ্কার করার আগে হাতে শুকনো গ্লাভস পরে নিন। শুধু বই পরিষ্কার করলেই চলবে না। সেই সঙ্গে যে রুমে বই রেখেছেন সেটিও নিয়মিত পরিষ্কার রাখুন।

বিষয়ভিত্তিক বই আলাদা করুন এবং সেগুলো সহজে চিহ্নিত করার জন্য নামসহ স্টিকার ব্যবহার করুন
শেলফে বা প্লাস্টিকের ঝুড়িতে, যেখানেই বই রাখুন বারবার নাড়াচাড়া করলে বইয়ের ক্ষতি হয়। বিশেষ করে বইয়ের বাঁধাইয়ে। কাজেই বই সহজে খুঁজে পাওয়ার জন্য বিষয়ভিত্তিকভাবে বইগুলোকে সাজিয়ে নির্দিষ্ট শেলফ বা ঝুড়িতে রাখুন। তারপর শেলফে বা ঝুড়িতে নির্দিষ্ট বিষয়ে নাম লেখা স্টিকার সাঁটিয়ে দিন। তাতে আপনার প্রয়োজনীয় বইটি খুঁজে পেতে সহজ হবে এবং অন্য বইগুলো অযথা নাড়াচাড়ার হাত থেকে রক্ষা পাবে।

তথ্যসূত্র: উইকি হাউ ও অন্যান্য ওয়েবসাইট