বিস্ময়কর শিশু প্রিয়ানশি

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৮ , ০৪:৫৮ পিএম
বিস্ময়কর শিশু প্রিয়ানশি


বিশ্বে এমন অবাক করা অনেক শিশুর জন্ম হয়েছে যারা অল্প বয়সেই হয়ে উঠেছে এক আশ্চর্যের বিষয়।

তারা প্রতিভা প্রদর্শনের মাধ্যমে খুব ছোটবেলাতেই হয়ে উঠেছে খ্যাতির অধিকারী। তেমনই একজন প্রিয়ানশি সোমানি।

মেয়েটির বয়স তখন মাত্র ছয় বছর। সে বয়সে যখন আমরা দুই একে দুই বা তিন দুগুণে ছয় নামতা গুনে হাঁপিয়ে গেছি, প্রিয়ানশি সোমানি নামের মেয়েটা তখন ভালোবেসে ফেলেছিল গণিতকে।

শুধু তাই নয়, এসময় মানসিক সমীকরণ করাও শুরু করে প্রিয়ানশি। মাত্র ১১ বছর বয়সে সে অংশ নেয় মানসিক সমীকরণ বিশ্বকাপের পঞ্চম আয়োজনে। তাও সবচেয়ে ছোট প্রতিযোগী হিসেবে। খুব একটা পাত্তা দেননি প্রথমটায় কেউ তাকে।

তবে সে বছরের বিশ্বকাপ যখন জয় করে বাড়িতে নিয়ে যায় প্রিয়নশি তখন অন্যরা নতুন করে নড়েচড়ে বসেন। আগ্রহী হোন তার বিষয়ে জানতে।

তার সাফল্য দেখে সবাই অবাক। যোগ, বিয়োগ, গুণ, ভাগ সবকিছুতে শতভাগ দক্ষতা দেখিয়ে প্রথমবারের মতো এত কম বয়সে আর শতভাগ ঠিক উত্তর দিয়ে কাপটি জিতে নেয় প্রিয়ানশি।

২০১০ সালে পোগো অ্যামেজিং কিডজ অ্যাওয়ার্ডও জেতে সে। বর্তমানে লিমকা বিশ্বরেকর্ডের বইয়ে লেখা রয়েছে গণিতে রেকর্ড সৃষ্টি করা প্রিয়ানশি সোমানির নাম।