কোটিপতি কুকুর গ্রামের গল্প

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৬ জুন ২০১৮ , ১২:২৬ পিএম
কোটিপতি কুকুর গ্রামের গল্প

মানুষের সঙ্গেই কোটিপতি কথাটি বেশি মানানসই। হয়েও আসছে তা-ই। তবে কোটিপতি কুকুরের কথা শুনেছেন কখনো? তাও আবার একটি-দু’টি নয়; গ্রামের সব কুকুরই কোটিপতি। ভারতের গুজরাট রাজ্যের মেহসানার পাশের পাঞ্চোট গ্রামে রয়েছে কোটিপতি কুকুরগুলো।

জানা যায়, ‘মন্দ নি পতি কুতরিয়া ট্রাস্ট’ নামে একটি কুকুরের সংস্থা রয়েছে। এই সংস্থার আছে ২১ বিঘা জমি। এই জমির দাম প্রতি বিঘা প্রায় ৩.৫ কোটি টাকা। আর সংস্থাটির অধীনে রয়েছে প্রায় ৭০টি কুকুর। প্রতিটি কুকুরের নামে ১ কোটি করে টাকা রাখা আছে।

সংস্থার অধ্যক্ষ ছগনভাই পাটেল জানান, কুকুরের জন্য আলাদা ভাগ রাখার প্রচলন বহু বছর আগের। এটা জীবের প্রতি দয়া ও প্রেমের পরিচয়। বিত্তবানদের জমির ছোট ছোট খণ্ড দান করার পর এ প্রথা শুরু হয়েছিল। সে সময় জমির দাম এতো বেশি ছিল না। ৭০ বছর আগেই জমিগুলো ট্রাস্টের কাছে চলে যায়। কিন্তু আজও সেই জমির মালিকের নামের জায়গায় তাদের নামই আছে।

তিনি আরো জানান, জমির দাম বাড়ার পরেও কেউই তাদের দান করা জমি ফেরত নেননি। ফসল ফলানোর আগে সংস্থাটি তার নিজের জমির একটি প্লটের নিলাম ডাকে। যে সবচেয়ে বেশি দাম দেয়, তাকেই সারা বছরের জন্য চাষ করার অনুমতি দেওয়া হয়। নিলাম থেকে পাওয়া টাকা দিয়েই গ্রামের কুকুরগুলোর খরচ বহন করা হয়। ওদের সেবা করা হয়।