কফি খেলে আয়ু বাড়ে

ফিচার ডেস্ক
প্রকাশিত: ১৭ জুলাই ২০১৭ , ১২:১৬ পিএম
কফি খেলে আয়ু বাড়ে

দিনে অন্তত এক কাপ কফি শরীরের জন্য খুব উপকারী। কয়েক কাপ হলে আরো ভালো। নতুন এক গবেষণায় এমনই তথ্য পাওয়া গেছে।

 

কফি শরীরের জন্য ক্ষতিকর, এমন ধারণা চালু আছে অনেকেরই মাঝে। কিন্তু সাত লাখ মানুষের ওপর চালানো দু`টো গবেষণা তা ভুল প্রমাণ করেছে।

 

দীর্ঘমেয়াদি এই গবেষণাগুলোতে দেখা যায়, কফি পান অনেক রোগে মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়, বিশেষ করে সঞ্চরণশীল ও গ্যাস্ট্রো-ইন্টেসটাইনাল রোগগুলোর ক্ষেত্রে।

 

‘ইন্টারন্যাশনাল এজেন্সি ফর রিসার্চ অন ক্যানসার` এবং ‘ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডন`-এর গবেষণাটিতে কফি পানের অভ্যাস ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি তুলনা করা হয়। যেমন ইটালিতে কেউ হয়ত এসপ্রেসো পছন্দ করেন, আবার লন্ডনে কেউ কাপুচিনোর ওপর চড়ে বসেছেন৷ গবেষকরা ইউরোপের দশটি দেশের ৫ লাখেরও বেশি মানুষের ওপর এই গবেষণাটি করেন।

 

দ্বিতীয় গবেষণাটিতে বিভিন্ন জাতি, তাদের জীবন পদ্ধতি ও রোগের ঝুঁকির সঙ্গে কফির সম্পর্ক নির্ণয় করার চেষ্টা করা হয়।

 

জাপনিজ-অ্যামেরিকান এবং ল্যাটিনোদের মধ্যে করা এই গবেষণায় দেখা যায়, এদের মধ্যে যারা দিনে অন্তত এক কাপ কফি খান, তাদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি যারা কফি খান না তাদের চেয়ে ১২ ভাগ কম। ইউনিভার্সিটি সাউথ ক্যারোলাইনা এই গবেষণাটি করেছে। গেল সোমবার গবেষণা দু`টি ‘অ্যানালস অফ ইন্টারনাল মেডিসিন`-এ প্রকাশিত হয়েছে।

 

দু`টো গবেষণাতেই দেখা যায়, দিনে তিন কাপ বা তার চেয়ে বেশি কফি খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে সবচেয়ে ভালো। সেক্ষেত্রে কফিটি ক্যাফেইনসহ না মুক্ত তাতে কিছু আসে যায় না৷ কফিতে প্রায় ১,০০০ রাসায়নিক পদার্থ আছে৷ ক্যাফেইন ছাড়াও এতে আছে পলিফেনল এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদান আছে এমন আরো যৌগ, যেগুলো শরীরের জন্য উপকারী।

 

ইম্পেরিয়াল কলেজ লন্ডনের গবেষকদের মতে, কফিপানকারীদের লিভার ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তুলনামূলক বেশি। তবে কফির ঠিক কোন উপাদানটি স্বাস্থ্যসুরক্ষায় এমন অবদান রাখছে, তা এখনো বের করতে পারেননি গবেষকরা।

 

১৬ বছর ধরে চলা এই গবেষণায় যদিও দেখা গেছে কফি পানে স্বাস্থ্য সুবিধা পেয়েছেন অনেকেই। গবেষকরা অবশ্য এমন গ্যারান্টি দিচ্ছেন না যে, কফি খেলেই কারো স্বাস্থ্যের ব্যাপক উন্নতি ঘটবে। তবে কে জানে, গবেষণার ফল দেখে কফি পাগলরা হয়ত আরেকবার তাদের খালি মগ ভর্তি করে নিয়েছেন। ডয়েচে ভেলে